বাংলাদেশ শনিবার 20, October 2018 - ৫, কার্তিক, ১৪২৫ বাংলা - হিজরী

চিনি মাছ ও সবজির দাম বেড়েছে

প্রকাশিত ২৩ জুলাই, ২০১৬ ১২:১৬:৫৮

নিত্যপণ্যের বাজার আবারো ঊর্ধ্বমুখি। সাপ্তাহের ব্যবধানে চিনির দাম বেড়েছে কেজি প্রতি পাঁচ টাকা। সব জাতের মাছ ও সবজির দাম গত সাপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা। শুক্রবার সকালে রাজধানীর শান্তিনগর বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখো গেছে। 

শান্তিনগর কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে ক্রেতা কম হলেও নিত্যপণ্যের দাম ছিল বাড়তি। ফলমুল থেকে শাক-সবজি সবই ক্রেতারা কিনছেন চড়া দামে।  তবে এ বাজারে মুরগী ও গরুর মাংসের দাম ছিল আগের মতোই। গরু ৪২০ এবং ব্রয়লার মুরগী ১৭৫ টাকা। এছাড়া দেশি মুরগী মাঝারি আকৃতির প্রতি পিচ ৩০০ থেকে ৩২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হতে দেখা গেছে।

শান্তিনগর কাঁচাবাজারের গলির মুখেই মেসার্স মতলব স্টোর। প্রতিষ্ঠানের মালিক শাহীন জাগো নিউজকে বলেন, জিনিষপত্রের দাম বাড়তে থাকায় নিন্ম আয়ের মানুষেরা বাজারে কম আসছে। এছাড়া দেশে জঙ্গি হামলার আতঙ্কের প্রভাব বাজারে পড়েছে। তাই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এখন  মানুষ ঘরের বাইরে যেতে চায় না। 

কাঁচা বাজারের বিভিন্ন দোকানে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, চিনির দাম ছিল প্রতিকেজি ৭৫ টাকা, ভালো মানের  চাল প্রকারভেদে প্রতিকেজি ৪৮ থেকে ৫০  টাকা। মোটা চাল ৩২ থেকে ৩৮ টাকা।  মসুর ডাল প্রতিকেজির ১০০ থেকে ১২০ টাকা। এছাড়া আলু ২৫ টাকা, রসুন প্রতিকেজি ৮০ থেকে ১৬০ টাকা ও গুড়া মরিচ প্রতিকেজি ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।  

টমাটো ১৮০ থেকে ২০০ টাকা। কাকরোল প্রতিকেজি ৫০ টাকা, বেগুন ৫০ থেকে ৬০ টাকা, কাঁচা কলা ১ হালি ৩০ টাকা, পুঁইশাক প্রতিকেজি ২৫ টাকা,পটল প্রতিকেজি ৪০ টাকা এবং কাঁচামরিচ প্রতিকেজি ৮০ থেকে ১০০ টাকা এবং  প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৪৫ থেকে ৪৮ টাকা দরে বিক্রি করছে খুচরা দোকানীরা।

মাছের বাজারে পর্যাপ্ত সরবরাহ দেখা গেলেও দাম ছিলো বেশি। মাঝারি আকারের ইলিশের প্রতিকেজি ৮০০ থেকে হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। রুই সাড়ে ৩০০থেকে ৪০০, নলা ১৮০ থেকে আড়াইশ, শিং ৫০০ থেকে ৮০০, চাষের কৈ ২০০ থেকে ২৫০ এবং প্রকার ভেদে গুড়া মাছ ২০০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।


footer logo

 ঢাকা অফিস
GA-99/3  Pragati sharani
Gulshan Dhaka 1212
ই-মেইল:- info@bdnationalnews.com

.